Header Ads

কেন্দ্রীয় বাহিনীতে দিদির এত আপত্তি কেন


কেন্দ্রীয় বাহিনীতে দিদির এত আপত্তি কেন

দিদিমণি কো গুস্যা কিঁউ আতা হ্যায়

টলি বাংলা ওয়েব ডেস্ক
২০১৯ সালের লোকসভা ভোট চলছে। ত্রিপুরা ছাড়া অন্য কোথাও অশান্তি নেই। একদা মাফিয়া, বাহুবলি শাসিত বিহারেও আজ সভ্য-ভদ্র নিরুপদ্রব ভোট পর্ব চলছে। কিন্তু অশান্তি আছে বাংলায়। বোমাবাজি, বুথ দখল, গুন্ডামি ইত্যাদি ছবি মিডিয়া দেখাচ্ছে। শাসকের বর্বর বাহিনীর কীর্তি।



এবার নির্বাচন কমিশন বের করা। মাথায় সুপ্রিম কোর্টের প্রখর নজরদারি। কমিশন বলছে বাংলায় শান্তিপূর্ণ ভোট করতে সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী রাখতে হবে।এটা বিরোধীদের দাবি হলেও কমিশন বুঝছে, যে ১০ বছর আগের বিহারের চেয়েও জঘন্য পরিস্থিতি এখন বাংলায়।
জঘন্য পরিস্থিতি এখন বাংলায়। দিদিমণি ও তৃণমূল রেগে যাচ্ছে। সাধারণ মানুষের নানান প্রশ্ন সামনে আসছে -
১) সব সমীক্ষা যখন বলছে তৃণমূল এবার ৪২ টি আসনের মধ্যে বিপুল সংখ্যক আসন পাবে, তাহলে এত রাগ কেন ?
২) উন্নয়নের জোয়ারে বাংলা যখন ভাসছে, তখন তৃণমূলের এত ভয় কেন ?
৩) বাম ও কংগ্রেস ভোটের বাজারে অদৃশ্য। বিজেপিও হালে পানি পাচ্ছে না। তাহলে তৃণমূল নাকে তেল দিয়ে ঘুমাচ্ছে না কেন ? কেন এত দুশ্চিন্তা ?
৪) বামেরা বলছে দিদি মোদি সেটিং বলেই নারদা স্ট্রিং অপারেশনে, যাদের টাকা নিতে দেখা গিয়েছিল সেই সমস্ত অভিযুক্তরা আবার ভোটে দাঁড়িয়েছে। ওরা ভোট ভাগ করে নেবে।



৪) তৃণমূল কি শান্তিপূর্ণ ভোট চায় না ? এমন প্রশ্ন করছেন বহু সাধারণ মানুষ।
৫) ২০১১ সালে কেন্দ্রীয় বাহিনীর তত্ত্বাবধানে ভোট হয়েছিল। বামেরা হেরে গিয়েছিল। তাহলে ২০১১ সালে কমিশনের ভূমিকা ভালো ছিল - এমনটা তৃণমূলেরই কথা।
৬) তৃণমূল কি চায় না সব ভোটার ভোট দিক ?কমিশন তো সব ভোটারের ভোট দেবার গ্যারান্টি দিতে তৎপর।
বিরোধীরা বলছে তৃণমূল বিরোধী শূন্য করতে চায়। ভোটারদের ভয় পায়। তাই ওদের নেতৃত্তের একাংশ প্রকাশ্যে বলছে - সমরে আর প্রেমে অন্যায়, অন্যায় নয়। বলছে নীতি বা কোনরকম আদর্শ নয় ভোট লুট করো। নাহলে দল থাকবে না।


বিশেষ প্রতিবেদন ঝর্ণা চক্রবর্তী 
( এই প্রতিবেদনের বয়ান লেখকের নিজস্ব। চ্যানেল কর্তৃপক্ষ কোন ভাবে দায়ী নয়)

Credit
Photo : Google


For the all News Update Please follow our Website www.tollybangla.com
Subscribe our Youtube Channel Tolly Bangla Youtube
Follow Us on Twitter Tolly Bangla twitter
Like our Facebook Page Tolly Bangla Facebook Page


( প্রিয় পাঠক / পাঠিকা , পোস্টটিতে  লাইক, মন্তব্য ও শেয়ার করুন এবং নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের পেজে লাইক করুন )

No comments

Powered by Blogger.